1. admin@lalmonirhatsongbad.com : admin :
শুক্রবার, ০১ জুলাই ২০২২, ০৫:৪৯ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
হাতীবান্ধা দইখাওয়ায় এক তরুণী বিয়ের দাবি নিয়ে প্রেমিকের বাড়িতে অনশন। দুইবার প্রতারণার শিকার হয়েছি এবার তাকে বিয়ে করবো। ফুলবাড়ীতে ঝুঁকিপূর্ণ কাঠের সেতুতে পারাপার, দেখার কেউ নেই। সড়ক নির্মাণে অনিয়মের প্রতিবাদ করায় চেয়ারম্যান কারাগারে উলিপুরে ১৩০পিস ইয়াবাসহ মাদক ব্যবসায়ী আটক পদ্মা সেতু উদ্বোধনের আমেজে লালমনিরহাটে আনন্দ র‍্যালী স্ত্রী কে মেনে না নেওয়ায় অভিমান করে যুবকের আত্মহত্যা পাগল করলো ভাগীনারে !! ৬ মাসের সন্তান রেখে ভাগিনাকে নিয়ে মামী উধাও যুক্তরাষ্ট্রের অহংকার গোল্ডেন ব্রিজ, আমাদের পদ্মা সেতু-হাতীবান্ধায় আইজিপি বেনজীর আহমেদ বূধবার হাতীবান্ধায় বাংলাদেশ পুলিশ জাদুঘর উদ্বোধনে আসছেন – আই জি পি বেনজীর আহমেদ

লালমনিরহাটে ত্রাণের স্লিপ চাওয়ায় বৃদ্ধাকে ধাক্কা দেওয়ায় চেয়ারম্যানও তার স্ত্রী গ্রেফতার।

  • আপডেট সময়: বুধবার, ২৮ জুলাই, ২০২১
  • ৪৫৫ বার পঠিত

লালমনিরহাট প্রতিনিধিঃ

লালমনিরহাটে আদিতমারীতে ত্রাণ চাওয়ায় বৃদ্ধাকে মারধর করে গুরুতর জখম করার মামলায় আদিতমারী উপজেলার পলাশী ইউপি চেয়ারম্যান শওকত আলী ও তার স্ত্রীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

আহত বৃদ্ধা আলেমা বেওয়ার ছেলে নুরুজ্জামানের দাযের করা মামলায় বুধবার (২৮ জুলাই) সকালে আদিতমারী এলাকা থেকে তাদের গ্রেফতার করে আদিতমারী থানা পুলিশ।

এর আগে সোমবার (১৯ জুলাই) রাতে চেয়ারম্যান শওকত আলী, তার স্ত্রী আনোয়ারা বেগম (৪৫) ও মেয়ে সুহিন আক্তারের(১৯) বিরুদ্ধে আদিতমারী থানায় মামলা করেন বৃদ্ধার ছেলে।

জানা যায়, অতি দরিদ্র আলেমা বেওয়া রিকশাচালক ছেলে নুরুজ্জামানের সংসারে বসবাস করেন। সম্প্রতি করোনার লকডাউনে রিকশাচালক ছেলের আয় রোজগার কমে যাওয়ায় নিদারুন অর্থ কষ্টে পড়ে পরিবারটি। ঈদের কিছুদিন আগে পলাশী ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান শওকত আলী ত্রাণ দেওয়ার কথা বলে বৃদ্ধা আলেমার কাছ থেকে জাতীয় পরিচয় পত্রের ফটোকপি গ্রহণ করেন। সেই ত্রাণ নিতে সোমবার (১৯ জুলাই) সকালে ইউনিয়ন পরিষদে ডাকেন চেয়ারম্যান।

এরপর চেয়ারম্যান তার বাড়িতে রাখা স্লিপ নিয়ে আসতে বললে বৃদ্ধা পরিষদের পাশে চেয়ারম্যানের বাড়িতে যান। সেখানে দুপুর পর্যন্ত স্লিপের জন্য অপেক্ষা করেন বৃদ্ধা। এরই মধ্যে ত্রাণ বিতরণ শেষ করে চেয়ারম্যান বাড়িতে চলে আসলে স্লিপ দাবি করেন বৃদ্ধা। এ সময় চেয়ারম্যানের নির্দেশে তার স্ত্রী আনোয়ারা বেগম (৪৫) ও মেয়ে সুহিন আক্তার (১৯) বৃদ্ধা আলেমা মারধর করে গলা ধাক্কা দিলে ক্ষুধার্ত বৃদ্ধা মেঝেতে পড়ে যান। এসময় তার দাঁত ভেঙে রক্ত ঝরতে থাকে এবং হাত, পা ও বুকে প্রচণ্ড আঘাত পেয়ে জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন।

বিপদ দেখে দ্রুত পল্লী চিকিৎসক নিয়ে নিজ বাড়িতে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে বাড়ি থেকে বের করে দেন চেয়ারম্যান। মায়ের অসুস্থতার খবরে রিকশাচালক ছেলে নুরুজ্জামান স্থানীয়দের সহায়তায় বৃদ্ধা আলেমাকে আদিতমারী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। এ ঘটনায় আহত বৃদ্ধার ছেলে নুরুজ্জামান বাদী হয়ে চেয়ারম্যান শওকত আলীকে প্রধান অভিযুক্ত করে চেয়ারম্যানের স্ত্রী ও মেয়ের বিরুদ্ধে একটি অভিযোগ দায়ের করেন।

এবিষয়ে ওসি সাইফুল ইসলাম বলেন, এ মামলায় চেয়ারম্যান ও তার স্ত্রীকে গ্রেপ্তার করে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরও খবর
© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২১ লালমনিরহাট সংবাদ
Theme Customized By Shakil IT Park