1. admin@lalmonirhatsongbad.com : admin :
শুক্রবার, ১২ অগাস্ট ২০২২, ১১:১১ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
হাতীবান্ধায় পাচারের শিকার কলেজ ছাত্রী ভারতে উদ্ধার হাতীবান্ধায় ফেনসিডিলসহ দু’জনকে আটক করলো- ওসি শীর্ষ মাদক সম্রাট বিশু গ্রেফতার – ৩৫০ ফেনসিডিল ২১ কেজি গাঁজাসহ হাতীবান্ধায় ফেন্সিডিলসহ ইজি বাইক চালক আটক হাতীবান্ধায় মাদক ব্যবসায়ের মুল হোতা আটক ফেন্সিডিল উদ্ধার ইউ-পি সদস্য সহ ৩ জনের নামে মামলা লালমনিরহাটে মাদককারবারি ইউপি সদস্যের মাদক পাচার কালে যুবক আটক কালীগঞ্জে বজ্রপাতে দুইটি মহিষ ও এক কৃষকের মৃত্যু হাতীবান্ধায় ভাইকে খাবার দিয়ে ফেরার পথে হামলার শিকার বড় ভাই, থানায় পৃথক দুটি অভিযোগ হাতীবান্ধায় সরকারি গুচ্ছগ্রামে মাটি ভরাট করে মামলা দিয়ে টাকা আত্মসাতের অভিযোগ

হাতীবান্ধায় ইউপি সদ্যস্যের বিরুদ্ধে পাচঁলক্ষ টাকা চাঁদাবাজির অভিযোগ

  • আপডেট সময়: বুধবার, ১৩ জুলাই, ২০২২
  • ৪৫ বার পঠিত

হুমায়ুন কবীর প্রিন্স  লালমনিরহাট জেলা প্রতিনিধিঃ

লালমনিরহাটের হাতীবান্ধায় অনশনরত রিয়ার ঘটনাটি মিমাংসা করে দেওয়ার কথা বলে ছেলের পরিবারের কাছ থেকে জোর করে অর্থ আদায়ের অভিযোগ উঠেছে গোতামারী ইউনিয়নের ইউপি সদস্য আমিনুর রহমানের বিরুদ্ধে।

এ বিষয়ে মোস্তাকিনের মা জোসনা বেগম বাদী হয়ে ৬ নম্বর ওয়াড সদস্য আমিনুর ইসলাম কে প্রধান আসামী করে সাথে আরও ছয় জনের নাম উল্লেখ করে হাতীবান্ধা থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

এর আগে ওই উপজেলার গোতামারী ইউনিয়নে গত ২রা জুলাই এ ঘটনা ঘটে।

এজাহার ভুক্ত অন্য আসামীরা হলেন গোতামারী ইউনিয়নের আব্দুল গফুরের ছেলে শহিদুল (৪০) ও তার ভাই রবিউল( ২৬) একই এলাকার শফিকুল ইসলামের ছেলে আব্দুল মালেক (৩০)ও রিপন (২৭) দইখাওয়া এলাকার মৃত তৈয়ব আলীর ছেলে মাহাবুল (২৭) সহ কিশোরগঞ্জ জেলার করিমগঞ্জ উপজেলার খাকশ্রী গ্রামের ইসরাত জাহান রিয়া (১৮)।
অভিযোগ সুত্রে জানা যায়, ঢাকায় চাকুরী করার সুবাদে কিশোরগঞ্জের রিয়ার সাথে পরিচয় হয় গোতামারী ইউনিয়নের ছেলে মোস্তাকিনের। পরিচয় থেকে মন দেয়া নেয়া। মেয়েটি বিয়ের জন্য চাপ দেয়ায় বাড়িতে চলে আসে মোস্তাকিন। গত মাসের ২৮জুন ছেলের বাড়ীতে বিয়ের দাবী নিয়ে অনশন শুরু করেন মেয়েটি । সেই মেয়ের জন্য গত ২ জুলাই স্থানীয় ইউ পি সদস্য আমিনুর মিমাংসার নামে পঞ্চাশ হাজার টাকা আদায় করেন।
জোসনা বেগম বলেন, আমিনুর মেম্বারসহ আসামী রা জোর করে আমার বাড়ীতে মেয়েটিকে ঢুকিয়ে দিয়েছে। মিমাংসার জন্য পঞ্চাশ হাজার টাকা নিয়েও মিমাংসা না করে মেয়েটিকে নিজের হেফাযতে রেখে আর ও পাচঁ লক্ষ টাকা দাবী করেন। তাই আমি স্থানীয় থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছি।
অভিযুক্ত ইউ পি সদস্য আমিনুর ইসলাম বলেন,
মামলাটি আমরা স্থানীয়ভাবে মিমাংসা করেছি।
এজাহার প্রত্যাহারের আবেদন দিয়েছে কিনা বাদী জোসনা বেগম এ প্রশ্নের সঠিক উত্তর তিনি দিতে পারেননি।
হাতীবান্ধা থানার ওসি( তদন্ত)রফিকুল ইসলাম অভিযোগের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, এবিষয়ে একটি অভিযোগ পেয়েছি তদন্ত করে দায়ী ব্যক্তির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরও খবর
© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২১ লালমনিরহাট সংবাদ
Theme Customized By Shakil IT Park